দুর্নীতি, বাল্য বিবাহ ও ইভটিজিংকে না বলুন: সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল

Sharing is caring!

আশাশুনি ব্যুরো: দুর্নীতি, বাল্য বিবাহ ও ইভটিজিংকে না বলুন’ ক্লিন সাতক্ষীরা, গ্রীন সাতক্ষীরা এ স্লোগানকে সামনে রেখে জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল বলেছেন, বাল্য বিবাহ, ইভটিজিং, নারী নির্যাতন ও মানবপাচার প্রতিরোধে সকল শ্রেণি পেশার মানুষের ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। এ জন্য বর্তমান সরকার সর্বোচ্চ আইনের প্রয়োগ করার জন্য সর্বদা আপনার পাশে রয়েছে। দেশে এ পর্যন্ত যত ধর্ষণ হয়েছে তার অধিকাংশ ধর্ষককে আইনের আওতায় আনা হয়েছে। অতএব, এমন অপরাধমূলক কাজ থেকে বিরত থাকা জন্য হুশিয়ার করছি। তিনি বলেন, এক ধরনের লোক রয়েছে যৌতুকের দাবীতে গৃহবধুকে নির্যাতন করে, প্রেমের ফাদে ফেলে মহিলাদের বিদেশে পাচার করে। জেলা প্রশাসক আরও বলেন, বাল্যবিবাহ একেবারেই নয়। কোন শিক্ষার্থ এতে হার মানবে না। এ জন্য জন প্রতিনিধি ও শিক্ষকদের বিভিন্ন উপস্থিত হয়ে বাল্য বিবাহ, মানব পাচার, ইভটিজিং ও নারী নির্যাতন বিষয়ে সচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন করার আহবান জানান। বুধবার আশাশুনি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে বাল্য বিবাহ, ইভটিজিং, নারী নির্যাতন ও মানবপাচার প্রতিরোধে জনসচেতনা মূলক ক্যাম্পেইনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ সব কথা বলেন। তিনি স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, শিক্ষক, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রী, বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি, সাংবাদিকসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষের উপস্থিতিতে আরো বলেন, আগামী মুজিব বর্ষের আগেই সাতক্ষীরা জেলাকে বাল্যবিবাহ মুক্ত করা হবে। তিনি ইভটিজিংসহ সকল অপরাধে ৯৯৯, বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে ৩৩৩ ও দূর্নীতি প্রতিরোধে ১০৬ নম্বরে উপস্থিত সকলকে কল করার আহবান জানান। উপজেলা পরিচালন ও উন্নয়ন প্রকল্প, স্থানীয় সরকার বিভাগ ও জাইকা’র সহায়তায় উপজেলা পরিষদ ও প্রশাসনের আয়োজনে এবং পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ের বাস্তবায়নে ক্যাম্পেইনে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মীর আলিফ রেজা। পরে একই স্থানে জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা কামালের সঞ্চালনায় মুজিববর্ষ উদযাপনে ‘তারুন্যের ভাবনা’ শীর্ষক ছাত্র-ছাত্রীদের অংশ গ্রহনে কথোপকথন সভা অনুষ্ঠিত হয়। সবশেষে তিনি ‘ক্লিন সাতক্ষীরা-গ্রীন সাতক্ষীরা’ বাস্তবায়নে আশাশুনি প্রেসক্লাবসহ উপজেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ময়লা ফেলানোর ঝুড়ি বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ও বক্তব্য রাখেন, আশাশুনি সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ ড. মিজানুর রহমান, সহকারি কমিশনার (ভূমি) পাপিয়া আক্তার, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অসীম বরণ চক্রবর্তী, ওসি তদন্ত ইমারাত হোসেন, পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর হোসেন, উন্নয়ন কর্মকর্তা দেবু বিশ্বাস ও প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা সোহাগ খান প্রমুখ। আলোচনায় ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, গালিব ইকবাল, আসমা সুলতানা জেরিন, সাবিকুন্নাহার, ফাইম, মুর্শিদা রহমান কেয়া, শাহরিয়ার হোসেন প্রমূথ।

newsadmin

সাতক্ষীরার গণমানুষের পত্রিকা--

shares