শ্যামনগরে চুরির মামলায় ইউপি সদস্যের ভাই গ্রেপ্তার

Sharing is caring!

ডেস্ক রিপোর্ট: শ্যামনগর উপজেলার মুন্সিগঞ্জের আটির উপর এলাকার মৃত আব্দুল গফুর মল্লিকের বাড়িতে দু:সাহসিক চুরির ঘটনায় শ্যামনগর থানা পুলিশ রিয়াজুল ইসলাম সবুজ (২৫) নামের একজনকে গ্রেপ্তার করেছে। শুক্রবার রাত ১১টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খুলনা শহরের খালিশপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।
উপজেলার সেন্ট্রালকালিনগর গ্রামের লুৎফর রহমার মল্লিকের ছেলে রিয়াজুল ইসলাম সবুজ সম্প্রতি দৌলতপুর কৃষি কলেজ থেকে কৃষি ডিপ্লোমা সম্পন্ন করেছেন। ইতিপুর্বে আব্দুল গফুর মল্লিকের নাতি জোবায়ের হোসেনকে অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবি করে গ্রেপ্তার হয়ে রিয়াজুল দীর্ঘদিন কারাগারে ছিলেন।
উল্লেখ্য, ২০ জানুয়ারি সোমবার গভীর রাতে দুস্কৃতিকারীরা মৃত আব্দুল গফুরের বিধবা স্ত্রী নুরুন্নেছা ও মেয়ে ফারজানাকে অচেতন করে নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকারসহ প্রায় নয় লাখ টাকার মালামাল লুট করে। ঘটনার পর ঐ বাড়ির গৃহকর্মী মজিদা বেগম ও তার ভাই মতিয়ার রহমান গ্রেপ্তার হয়ে এখন কারাগারে রয়েছেন।
এঘটনায় ২১ জানুয়ারি বিধবা নুরুন্নেছা বেগম বাদি হয়ে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে শ্যামনগর থানায় মামলা (যার নং ২৪) করে। রিয়াজুল ইসলাম সবুজের ভাই ইউপি সদস্য সিরাজুল ইসলাম পল্টু জানিয়েছে চুরি বা লুটের ঘটনায় জড়িত না হওয়ার পরও গ্রাম্য দলাদলির কারনে তার ভাইকে বাদির অভিযোগের কারনে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
শ্যামনগর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. নাজমুল হুদা জানিয়েছে মুন্সিগঞ্জে মা-মেয়েকে অচেতন করে স্বর্ণালংকার ও টাকা লুটের ঘটনায় গ্রেপ্তার রিয়াজুলকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।
এদিকে শ্যামনগর থানা পুলিশ পলাতক আসামী আইয়ুব আলীসহ কামাল হোসেন ও ইদ্রিস আলী নামের আরও তিনজনকে গ্রেপ্তার করে শুক্রবার রাতে।

newsadmin

সাতক্ষীরার গণমানুষের পত্রিকা--

shares